স্ত্রী হাটলেন আগে, পেলেন তালাক

প্রকাশিতঃ ২২ আগস্ট ২০১৭ আপডেটঃ ২:৪২ অপরাহ্ণ

রাস্তা চলতে গিয়ে আগে হাঁটায় স্ত্রীকে তালাক দিয়েছেন সৌদি আরবের এক ব্যক্তি। কয়েকবার সতর্ক করার পরও ওই নারী আগেই হাঁটতে থাকেন, যার পরিণতি গড়ায় বিবাহ বিচ্ছেদে। সৌদি আরবের জাতীয় দৈনিক আল ওয়াতানের বরাতে মঙ্গলবার এ খবর দিয়েছে দ্য গালফ নিউজ।

সৌদি আরবে বিশেষ করে উপজাতি এলাকায় এ ধরনের অপ্রত্যাশিত কারণে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ব্যাপকহারে বেড়ে গেছে। আর নবদম্পতিদের মধ্যে এই হার অনেক বেশি।

অন্য আরেকটি ঘটনায়, এক সৌদি যুবকের স্ত্রী রাতের খাবার পরিবেশনের সময় মাথায় কাপড় (শেফ হেড) না দেওয়ায় তাকে তালাক দেওয়া হয়েছে।

আরও খবর : দু’ছেলের নাম ভারত ও পাকিস্তান

সৌদি আরবে রাতের খাবারের অন্যতম অনুসঙ্গ শেফ হেড। সৌদি ওই যুবক তার বন্ধুকে নিয়ে নৈশভোজ করছিলেন। তার স্ত্রী খাবার পরিবেশনের সময় শেফ হেড দিতে ভুলে গিয়েছিলেন।

পরে ওই নারী জানান, বন্ধুটি চলে যাওয়ার পর স্বামী তার ওপর চড়াও হন। মানুষের সামনে তাকে বিব্রত করার জন্য আমি এই কাজ করেছি বলে স্বামী অভিযুক্ত করতে থাকেন। পরে যা হবার তাই হলো, বিবাহ বিচ্ছেদ!
পত্রিকাটি একই ধরনের আরেকটি ঘটনা তুলে ধরেছে। যেখানে হানিমুনে গিয়ে এক নববধূ পায়ে নূপুর পরেছিলেন। পরে তাকে তালাক দেন স্বামী।

দেশটিতে ঘটকালির কাজ করেন হুমাদ আল শিমারি। তিনি জানান, বিগত দুই বছর হলো, এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত বিবাহ বিচ্ছেদ ব্যাপকহারে বেড়ে গেছে।

হুমাদ আরও বলেন, ‘বিয়ে বিচ্ছেদে অনেক কারণই থাকতে পারে। তবে আধুনিক প্রযুক্তি আসায় মানুষ বিগড়ে যাচ্ছেন। তারা ঐতিহ্য এবং সামাজিক রীতিনীতি ভেঙে ফেলছেন। ফলে সংসারে অশান্তি দেখা দিচ্ছে।’

সমাজকর্মী লতিফা হামিদ বলেন, ‘পরিবারের উচিত তাদের তরুণ-তরুণীদের শিক্ষিত করে তোলা। পাঠ্যপুস্তকে মানসিক, সামাজিক ও ধর্মীয় সচেতনতা বাড়ানোর বিষয় বেশি করে থাকা দরকার। সংসারের সমস্যা সমাধান এবং ভবিষ্যত প্রজন্মকে রক্ষায় এটি খুবই জরুরি।’

এসএইচ-০৪/২২/০৮ (অনলাইন ডেস্ক)