দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ খায় চার যুবক

প্রকাশিতঃ ২২ আগস্ট ২০১৭ আপডেটঃ ৪:২৩ অপরাহ্ণ

সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার এস্টকোর্ট শহরের জনৈক বাসিন্দা হঠাৎ একদিন স্থানীয় থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে বললেন, ‘মানুষের মাংস খেতে আর ভালো লাগছে না। ‘

অদ্ভুত হলেও সত্য প্রমাণস্বরূপ তিনি পুলিশের হাতে তুলে দিলেন মানুষের একটি হাত ও পা। এরপরে, লোকটি নিজেই পুলিশকে নিয়ে যায় তার বাড়িতে। যেখানে মানুষের দেহের আরও কিছু অংশ পাওয়া যায়।

আরও খবর : বিলাসবহুল গাড়িতে চেপে চোর যেত চুরি করতে !

ঘটনায় জড়িত আরও তিন সন্দেহভাজনকে আটক করে পুলিশ। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, পুলিশ মনে করছে সে অঞ্চলের ধর্ষণ ও খুনের জন্য দায়ি এই চারজনের মধ্যে দুই জন। ২২, ২৯, ৩১ ও ৩২ বছরের চার যুবককে কোর্টে তোলা হলে। তাদের পুলিশ হেফাজতে রাখার আদেশ দেয় দেশটির আদালত।

ইতিমধ্যে এ নিয়ে তদন্তও শুরু হয়েছে। এক অপরাধীর বাড়িতে একটি বাটির মধ্যে আটটি মানুষের কান পাওয়া যায়। অন্য একজনের বাড়ি থেকে পাওয়া যায় মানব দেহের নানা অঙ্গ ও টিস্যু।

প্রথমিকভাবে পুলিশ মনে করছে, ওই চার যুবক একজন মহিলাকে হত্যা করে তার শরীর কেটে ফেলে। দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ রেখে দিয়ে কিছু অংশ তারা খায় বলেও মনে করছে পুলিশ। যে কথা স্বীকারও করেছে চার অপরাধীর একজন।

এসএইচ-১২/২২/০৮ (অনলাইন ডেস্ক, সূত্র: এবেলা)