ধোনি-নেহরাকে ঘিরে আচমকা আশঙ্কার মেঘ

প্রকাশিতঃ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ আপডেটঃ ১০:০৮ অপরাহ্ণ

একই মাঠে পাশাপাশি নেটে দুটো দল অনুশীলন করছেন। কিন্তু আড়াই ঘণ্টার অনুশীলেনে দু’দলের কোনও ক্রিকেটারই এগিয়ে গিয়ে সামান্য সৌজন্য বিনিময়ও করলেন না। দুই চিরশত্রুর চাপা টেনশন শনিবার ম্যাচ শুরুর ২৪ ঘণ্টা আগে থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে। সৌজন্যে ভারত-পাক লড়াই। ঘটনাস্থল বাংলাদেশের ফতুল্লাহ্ স্টেডিয়াম। দীর্ঘদিন

পরে শনিবার এখানেই মুখোমুখি হবে ভারত-পাকিস্তান। মাঠে যে কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলবেন না, শুক্রবার অুশীলনেই একে অপরকে বুঝিয়ে দিলেন কোহলি-আফ্রিদিরা।

আন্তর্জাতিক ম্যাচের আগে অনুশীলনের সময়ে দু’দলের ক্রিকেটারদের মধ্যে সৌজন্য বিনিময় অথবা টুকটাক মজাও পরিচিত ছবি। কিন্তু একে দীর্ঘদিন পরে বাইশ গজে ভারত-পাক লড়াই, তার উপরে সাম্প্রতিককালে ক্রিকেট মাঠের বাইরেও দু’দেশের সম্পর্কে অবনতি। সবকিছুর নির্যাস যেন শনিবারের অনুশীলনে দেখা গেল।

এর মধ্যে আবার শহিদ আফ্রিদি ভারতের উপরে মনস্তাত্ত্বিক চাপ বাড়ানোর চেষ্টা শুরু করে দিয়েছেন। তাঁর দাবি, ভারত-পাক সম্পর্ক যেমনই হোক না কেন, ক্রিকেট বা

খেলাকে তার বাইরে রাখা উচিত। যদিও পাকিস্তান সরকার দু’দেশের সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে বারবার এগিয়ে এসেছে বলেও দাবি করেছেন পাক অধিনায়ক।

এদিকে শুক্রবারও অনুশীলন করেননি ধোনি, নেহরা। এমনিতেই পিঠে ব্যথা নিয়েই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে খেলেছিলেন ধোনি। সূত্রের খবর, সেই কারণেই শনিবারের ম্যাচের আগে

অনুশীলনে অধিনায়ককে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। শনিবারের ম্যাচে ধোনিই টস করতে যাবেন বলে ধরে নেওয়া যায়। অন্যদিকে চোটপ্রবণ নেহরাকেও বাঁচিয়ে রাখছে টিম

ম্যানেজমেন্ট। ফলে ৩৬ বছরের পেসারের জন্য আলাদা অনুশীলনের শেডিউল রাখা হয়েছে। সম্ভবত সেই কারণেই নেহরাকেও শুক্রবারের অনুশীলনে দেখা যায়নি।

একদিকে প্রতিপক্ষের স্নায়ুর চাপ, অন্যদিকে দলের দুই সেরা বাজিকে নিয়ে কোহলি এবং ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের কিছুটা উদ্বেগ থাকছেই।

স্পোর্টস ডেস্ক (সূত্র : এবেলা)